ঢাকা, শনিবার, জানুয়ারী ২১, ২০১৭

সংবাদ শিরোনাম 

রাষ্ট্রপতি : জন্মভূমির প্রতি মধুসূদনের অনুরাগ আগামী প্রজন্মের কাছে দেশপ্রেমের নিদর্শন হয়ে থাকবে : রাষ্ট্রপতি   |    জাতীয় সংবাদ : বিএনপির মরা গাঙ্গে আর কখনো জোয়ার আসবে না : ওবায়দুল কাদের   |   প্রধানমন্ত্রী : স্বদেশের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রীর সুইজারল্যান্ড ত্যাগ * মধুসূদন দত্তের অনন্য সাহিত্যকীর্তি বাংলা ভাষা ও সাহিত্যের অমূল্য সম্পদ : প্রধানমন্ত্রী   |    অর্থনীতি : অর্থনৈতিক অগ্রগতিতে বাংলাদেশ গেইম চেঞ্জার হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে : শিল্পমন্ত্রী   |   খেলাধুলার সংবাদ : অভিষেক হলো নুরুল ও নাজমুলের * মাত্র ২৮৯ রানে গুটিয়ে গেল বাংলাদেশ * ইংল্যান্ড বিশ্বকাপ পর্যন্ত শ্রীলংকার অধিনায়ক থাকবেন ম্যাথুজ   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : লিবিয়ায় মার্কিন হামলায় ১০০ জন আইএস সদস্য নিহত * সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে বিমান হামলায় ৪০ জিহাদি নিহত   |    বিভাগীয় সংবাদ : নড়াইলে জমে উঠেছে সপ্তাহব্যাপী সুলতান মেলা * ভোলায় প্রায় পৌনে ৩শ পরিবারের মাঝে বিদ্যুৎ সংযোগ * মানিকগঞ্জে চলছে তিন দিনব্যাপী ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলা   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : যুক্তরাষ্ট্রের নতুন প্রশাসনের সঙ্গে সম্পর্ক জোরদারের অঙ্গীকার জাপানের * মেক্সিকোর মাদক সম্রাট গুজমানকে যুক্তরাষ্ট্রের কাছে হস্তান্তর * চূড়ান্ত আলোচনার লক্ষ্যে গাম্বিয়ায় আফ্রিকান বাহিনীর অভিযান স্থগিত * সলোমন দ্বীপপুঞ্জে শক্তিশালী ভূমিকম্প   |    জাতীয় সংবাদ : আম বয়ানের মধ্যদিয়ে বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব শুরু* জামায়াত, রাজাকার ও জঙ্গিদের সঙ্গে নিয়ে গণতন্ত্র মজবুত করা যায় না : তথ্যমন্ত্রী* বঙ্গবন্ধু ১০ জানুয়ারি ফিরে না আসলে বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব থাকতো না * রাজনীতিতে বিভেদ বাড়ছে : সেতুমন্ত্রী   |   

কঙ্গোতে মিলিশিয়া প্রধানকে হত্যার জেরে সংঘর্ষে ২৬ হত

কিনশাসা, ১২ জানুয়ারি ২০১৭ (বাসস) : গণপ্রজাতন্ত্রী কঙ্গোতে এক উপজাতীয় প্রধানকে হত্যার জেরে তার সমর্থক ও নিরাপত্তা বাহিনীর মধ্যে নতুন বছরের শুরু থেকে দফায় দফায় সংঘর্ষে ২ ডজনের বেশি লোক নিহত হয়েছে।
স্থানীয় এক গভর্নর এক বিবৃতিতে এ কথা বলেন।
কেন্দ্রীয় কাসাই প্রদেশের গভর্নর আলেক্স কান্দে এক বিবৃতিতে বলেন, ২০১৭ সালের শুরু থেকে এ পর্যন্ত ৪ বেসামরিক নাগরিক, নিরাপত্তা বাহিনীর ৯ সদস্য ও ১২ মিলিশিয়া যোদ্ধাসহ ২৬ জন নিহত হয়েছে।
কান্দে বলেন, নিহতদের মধ্যে এক মিলিশিয়া নেতার স্ত্রীও রয়েছেন।
জাতিসংঘের হিসেব মতে, গত মধ্য আগস্টে উপজাতীয় নেতা কামউইনা সাঁপুর মৃত্যুর পর থেকে এ পর্যন্ত অন্তত ১৪০ জন লোক বিভিন্ন সংঘর্ষে নিহত হয়েছে।
গত সপ্তাহে এক বিবৃতিতে জাতিসংঘ বলেছে, কঙ্গোর পরিস্থিতি দিন দিন অবনতি হচ্ছে।
গভর্নর কান্দে এক বিবৃতিতে বলেন, কামউইনা সাঁপুর আন্দোলন সম্পূর্ণ অরাজতকা থেকে ভয়াবহ গেরিলা বাহিনীতে রূপ নিয়েছে।
গভর্নর অভিযোগ করেন, কামউইনা সাঁপুর সমর্থকরা তাদের সরকার বিরোধী লড়াইয়ে জোর করে অপ্রাপ্ত বয়স্কদের সম্পৃক্ত করছে এবং নারী ও শিশুদের মানবঢাল হিসেবে ব্যবহার করছে।
কামউইনা সাঁপু অনলাইনে এক অডিও বার্তায় প্রথমবারের মতো কঙ্গো মুক্ত করার আহবান জানানোর পর পরই গত বছর ১২ আগস্ট এক পুলিশী অভিযানে নিহত হন।
প্রেসিডেন্ট জোসেফ কাবিলা পদত্যাগ করতে অস্বীকৃতি জানানোর পর থেকে ডিআর কঙ্গোর বেশ কয়েক মাস ধরে রাজনৈতিক সংকটে পড়েছে।
তবে দেশটির বিশাল জনগোষ্ঠী কাবিলার শাসনের সাথে সংশ্লিষ্ট নয় এমন অসন্তোষের কারণে দুর্ভোগ পোহাচ্ছে। দেশটি কয়েকটি অংশে জাতিগত ও ধর্মীয় সংঘাত চলছে।

সম্পর্কিত সংবাদ