ঢাকা, শুক্রুবার, ফেব্রুয়ারী ২৪, ২০১৭

সংবাদ শিরোনাম 

জাতীয় সংবাদ : এপ্রিলে ঢাকায় আইপিইউ ১৩৬ তম সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে   |   শিক্ষা : মুক্তির উৎসবে শিক্ষার্থীদের শপথ   |    বিভাগীয় সংবাদ : গাংনীতে যাত্রীবাহী বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে আহত ৮ * জয়পুরহাট শিবরাত্রি উৎসব শুরু : ভক্তদের পদভারে মুখরিত * কুয়েটে আগামীকাল থেকে শুরু হচ্ছে ওয়েস্টসেফ-১৭ শীর্ষক আন্তর্জাতিক সম্মেলন   |    জাতীয় সংবাদ : ন্যাশনাল ডিফেন্স কলেজ পরিচালিত ক্যাপস্টোন কোর্সের এলামনাই পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত* অপরাধ করলে তাকে শাস্তি পেতেই হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী* ডব্লিওএলএফর সোস্যাল ইনোভেটর ক্যাটাগরিতে পুরস্কৃত হলেন হুইপ ইকবালুর রহিম* নয়াদিল্লির উদ্দেশে জয়শংকরের ঢাকা ত্যাগ   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : লিবিয়ায় জাহাজের কন্টেইনার থেকে ১৩ অভিবাসন প্রত্যাশীর লাশ উদ্ধার * ফিলিপাইনে প্রেসিডেন্টের সমালোচক নারী সিনেটর গ্রেফতার * কয়লা আমদানি নিষিদ্ধ প্রশ্নে মিত্র দেশ চীনের সমালোচনা উ. কোরিয়ার   |   খেলাধুলার সংবাদ : সিরিজে এগিয়ে যাওয়ার লক্ষ্যে নামছে নিউজিল্যান্ড ও দক্ষিণ আফ্রিকা * জয়ের ধারায় ফিরতে চায় শীর্ষে থাকা চেলসি *   |   

ইয়েমেন যুদ্ধ কেড়ে নিয়েছে ১৪শ শিশুর প্রাণ

সানা, ১২ জানুয়ারি ২০১৭ (বাসস) : ইয়েমেন যুদ্ধ ১৪শ শিশুর প্রাণ কেড়ে নিয়েছে, আহত হয়েছে আরো কয়েকশ শিশু এবং অনেক স্কুল যুদ্ধের কারণে বন্ধ হয়ে গেছে।
জাতিসংঘ শিশু তহবিল বুধবার এ কথা জানায়।
ইয়েমেনে ইউনিসেফের প্রতিনিধি মেরিটসেল রেলানো বলেন, বেসামরিক এলাকাগুলোতে হামলার কারণে এখনো বহুসংখ্যক শিশুর প্রাণহানি এবং আহত হওয়া অব্যাহত রয়েছে।
তিনি বলেন, প্রায় ১৪শ শিশুর প্রাণহানির বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেলেও প্রকৃত হতাহতের সংখ্যা আরো অনেক বেশি হতে পারে।
২০১৫ সালের মার্চে ইয়েমেন সরকারের সমর্থনে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট ইরান সমর্থিত হুতি বিদ্রোহীদের ওপর বিমান হামলা শুরুর পর থেকে ইয়েমেনে এ পর্যন্ত ৭ হাজার ৩শরও বেশি নিহত হয়েছে।
রেনালো বিবদমান পক্ষগুলোর প্রতি শিশুদের রক্ষা করার এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে হামলা বন্ধ করার আহবান জানায়।
রেনালো বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সবসময় হওয়া উচিত শান্তির এলাকা। স্কুল হবে এমন এক অভয়াশ্রম যেখানে শিশুরা শিখবে, বড় হবে, খেলবে এবং নিরাপদ থাকবে।
তিনি বলেন, কেবল স্কুলে যাওয়ার জন্য শিশুদের কখনোই জীবনের ঝুঁকি নেয়া উচিত নয়।
তিনি জানান, ধ্বংস, ক্ষতিগ্রস্ত ও আশ্রয় কেন্দ্র বা সামরিক উদ্দেশ্যে ব্যবহারের কারণে ইয়েমেনে প্রায় ২ হাজার স্কুল ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে।

সম্পর্কিত সংবাদ