ঢাকা, রবিবার, এপ্রিল ২২, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

প্রধানমন্ত্রী : তারেক লন্ডনে বসে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড করছে : প্রধানমন্ত্রী   |    জাতীয় সংবাদ : সাইবার অপরাধের বিরুদ্ধে কমনওয়েলথের দৃঢ় অবস্থান * বাণিজ্য ও বিনিয়োগের জন্য যোগাযোগ এজেন্ডা গ্রহণ করলো কমনওয়েলথ * উন্নয়ন ও সুশাসনের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে নৌকায় ভোট দিন : স্বাস্থ্যমন্ত্রী   |    জাতীয় সংবাদ : প্রধানমন্ত্রী দেশে ফেরার পরই মহার্ঘ্য ভাতা সম্পর্কিত প্রজ্ঞাপন : ইনু * বিসিএসআইআর মডেল রাস্তা নির্মাণে জাপানের টুইস্টার টেকনোলজি ব্যবহার করবে * জাতিসংঘের ৫৪টি শান্তিরক্ষা মিশনে বাংলাদেশের ১ লাখ ৫৬ হাজার ৩২৮ জন শান্তিরক্ষীর অংশ গ্রহণ   |   খেলাধুলার সংবাদ : আইপিএল : গেইল-রাহুল ঝড়ে উড়ে গেল কলকাতা *ওয়াটসনের সেঞ্চুরিতে জয়ের ধারায় ফিরলো চেন্নাই *মিরপুরে শুরু হয়েছে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক ভলিবল   |   আবহাওয়া : দেশের কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলাবৃষ্টি হতে পারে   |    বিভাগীয় সংবাদ : টাঙ্গাইলে বজ্রপাতে কৃষকের মৃত্যু *দিনাজপুরে পৃথক ২টি সড়ক দুর্ঘটনায় ১৯ জন আহত   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : উ. কোরিয়ার প্রতিশ্রুতিতে সন্তুষ্ট নয় জাপান *সিনেট প্যানেলে প্রত্যাখ্যাত হতে পারেন পম্পেও * অশালীন ভিডিও : সৌদি আরবে বন্ধ করে দেয়া হলো নারী শরীরচর্চা কেন্দ্র *পারমাণবিক অস্ত্র নিরস্ত্রীকরণ প্রশ্নে ইতিবাচক পদক্ষেপ উ.কোরিয়ার   |   

রোহিঙ্গা সংকট প্রশ্নে সুকি-গুতেরেস বৈঠক

ম্যানিলা, ১৫ নভেম্বর, ২০১৭ (বাসস ডেস্ক) : বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গা শরণার্থীদের দেশে ফিরে যাওয়ার সুযোগ করে দিতে জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্টোনিও গুতেরেস মিয়ানমারের নেতা অং সান সুকির প্রতি আহবান জানিয়েছেন। ফিলিপাইনে এক শীর্ষ সম্মেলনে মঙ্গলবার তাদের এক বৈঠকে এ আহবান জানানো হয়। তার দপ্তর এ কথা জানায়। খবর এএফপির।
সম্মেলনে মুসলিম সংখ্যালুঘু জনগোষ্ঠীর এই সংকট নিরসনে পদক্ষেপ নেয়ার ব্যাপারে সুকির ওপর আন্তর্জাতিক চাপ প্রয়োগের কথাও বলা হয়।
এদিকে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসনেরও মঙ্গলবার ম্যানিলায় তার সঙ্গে বৈঠক করার কথা রয়েছে। পরে তিনি সেখান থেকে মিয়ানমারে যাবেন।
জাতিসংঘের এক বিবৃতিতে বলা হয়, জাতিসংঘ মহাসচিব বলেন, দেশটিতে মানবিক সাহায্য প্রবেশ, নিরাপত্তা ও সম্মানের সাথে দেশে ফিরে যাওয়া নিশ্চিত করার পাশাপাশি বিভিন্ন সম্প্রদায়ের মধ্যে সমন্বয় সাধন জরুরি।
বিগত আড়াই মাসে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্য থেকে ছয় লাখেরও বেশী রোহিঙ্গা পালিয়ে গিয়ে প্রতিবেশী দেশ বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে।
রোহিঙ্গা বিদ্রোহীরা মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের বিভিন্ন পুলিশ ফাঁড়িতে হামলা চালানোর পর দেশটির সামরিক বাহিনী ওই অঞ্চলে ব্যাপক দমন-পীড়ন চালালে এ সংকটের সৃষ্টি হয়। এ অভিযান চালানোর সময় তারা রোহিঙ্গাদের অনেক গ্রাম জ্বালিয়ে দেয় এবং এসব জনগোষ্ঠীর ওপর অমাববিক নির্যাতন চালায়।