ঢাকা, বুধবার, ফেব্রুয়ারী ২১, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

জাতীয় সংবাদ : একুশের প্রথম প্রহরে ভাষা শহীদদের প্রতি রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন   |   প্রধানমন্ত্রী : রোহিঙ্গা সংকট অবসানে প্রধানমন্ত্রী মিয়ানমারের ওপর ভারতের চাপ প্রয়োগ কামনা করেছেন   |    জাতীয় সংবাদ : স্বাধীনতা পুরস্কারের জন্য ১৬ জন মনোনীত * ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় আসামী পক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন অব্যাহত * রাজধানীসহ সারাদেশে র‌্যাবের নিরাপত্তা জোরদার   |   রাষ্ট্রপতি : পিএসসির প্রতি জনগণের আস্থা অর্জনে কাজ করতে রাষ্ট্রপতির আহ্বান * দুটি বিলে রাষ্ট্রপতির সম্মতি * ভাষা ও সংস্কৃতি রক্ষায় অমর একুশের চেতনা অনুপ্রেরণার অবিরাম উৎস : রাষ্ট্রপতি   |   বিনোদন ও শিল্পকলা : ওবায়দুল কাদেরের বই মাটি ও মানুষের কথা মেলায় এসেছে *সাহিত্য, প্রকাশনা ও পাঠক সৃষ্টিতে অমর একুশে গ্রন্থমেলার অবদান অনন্য : লেখকবৃন্দ   |    জাতীয় সংবাদ : আদালতের রায়ে নির্বাচনের যোগ্যতা হারালে কিছুই করার নেই : ওবায়দুল কাদের * কাল মহান একুশে ফেব্রুয়ারি * গৌরীপুরে বাসের ধাক্কায় অটোরিকশার ৪ যাত্রী নিহত * বঙ্গবন্ধু যেভাবে সর্বস্তরে বাংলা ভাষা চালুর পরিকল্পনা করেছিলেন   |   খেলাধুলার সংবাদ : আইসিসি ওয়ানডে বোলিং র‌্যাংকিংয়ে যৌথভাবে শীর্ষে রশিদ-বুমরাহ *ফিলিস্তিনে ফিফা বিশ্বকাপ ট্রফি *রশীদ খানের বোলিংয়ে আবারো জিম্বাবুয়েকে হারিয়েছে আফগানিস্তান   |   প্রধানমন্ত্রী : ২১ বিশিষ্ট নাগরিককে প্রধানমন্ত্রীর একুশে পদক প্রদান * আমাদের ঐতিহ্য-সংস্কৃতিকে যথাযথ মর্যাদা দিতে হবে : প্রধানমন্ত্রী * একুশের চেতনা ও মুক্তিযুদ্ধের মূল্যবোধকে ধারণ করে সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী   |   আবহাওয়া : রাত এবং দিনের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে   |    বিভাগীয় সংবাদ : চুয়াডাঙ্গা সাহিত্য সম্মাননা পদক পাচ্ছেন ইবি শিক্ষক ড. রবিউল *বিজয় সরকারের ১১৬তম জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে তিন দিনব্যাপী উৎসব শুরু   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : জেরুজালেম প্রশ্নে যুক্তরাষ্ট্রের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানাতে জাতিসংঘে যাচ্ছেন ফিলিস্তিনি নেতা * ফিলিপাইনে ডায়রিয়ায় ১০ জনের মৃত্যু * সিরিয়ায় বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত এলাকায় বিমান হামলা : ১শ বেসামরিক নাগরিক নিহত   |   

মিয়ানমারে সশস্ত্র দুটি জাতিগত গোষ্ঠী অস্ত্রবিরতিতে স্বাক্ষর করবে

নাইপিদো (মিয়ানমার), ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ (বাসস ডেস্ক) : মিয়ানমারের দুটি সশস্ত্র জাতিগত গোষ্ঠী মঙ্গলবার এক অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে অস্ত্রবিরতিতে স্বাক্ষর করতে যাচ্ছে। খবর বার্তা সংস্থা এএফপির।
সরকার আশা করছে এটা হবে শান্তি প্রক্রিয়ার ক্ষেত্রে একটি অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বিজয়। সমালোচকরা অবশ্য এই চুক্তিকে ঠুনকো হিসেবে আখ্যায়িত করেছে।
মিয়ানমারে পশ্চিমাঞ্চলীয় রাখাইন রাজ্যে রক্তাক্ত সেনা অভিযানে প্রায় সাত লাখ রোহিঙ্গা মুসলিম প্রাণ বাঁচাতে সীমান্ত পাড়ি দিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করলে সম্প্রতি মিয়ানমার বিশ্ববাসীর মনযোগ আকর্ষণ করে।
তবে এটা দেশটির গোলযোগপূর্ণ অঞ্চলগুলোতে বেশ কয়েকটি সংঘাতের মাত্র একটি অংশ।
মিয়ানমারে বেশ কয়েকটি জাতিগত সংখ্যালঘু গোষ্ঠী স্বায়ত্বশাসনের দাবিতে রাষ্ট্রের সঙ্গে কয়েক দশক ধরে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে।
পাঁচ দশকের সামরিক শাসনের অবসান ঘটিয়ে ২০১৬ সালে মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর অং সান সুকির বেসামরিক প্রশাসন ক্ষমতা গ্রহণ করার পর তিনি বলেছিলেন, দেশে শান্তি প্রতিষ্ঠা করাই তার প্রধান লক্ষ্য।
তবে তিনি তার প্রতিশ্রুতির সামান্যই রক্ষা করতে পেরেছেন। সীমান্ত এলাকাগুলোতে প্রায়ই মাদক সংক্রান্ত সহিংসতা দেখা দেয়। এতে হাজার হাজার লোক গৃহহীন হয়ে পড়েছে।
মঙ্গলবার নাইপিদো-তে নিউ মোন স্টেট পার্টি (এনএমএসপি এবং লাহু ডেমোক্র্যাটিক ইউনিয়ন (এলডিইউ) ন্যাশনাল সিজফায়ার এগিমেন্ট (এনসিএ) চুক্তিতে স্বাক্ষর করবে। এরপর সরকার একে একটি প্রতিকী বিজয় বলে আখ্যায়িত করতে পারে। এরা আরো আটটি মিলিশিয়া বাহিনীর সঙ্গে যুক্ত হবে। সুকির দায়িত্ব গ্রহণের আগে এরা এই চুক্তিতে স্বাক্ষর করেছিল।
এই গোষ্ঠী দুটি সেনাবাহিনীর সঙ্গে কিছু দিনের জন্য সরাসরি সংঘাতে জড়িয়ে না পড়লেও শক্তিশালী বিদ্রোহী জোটের অংশ। ওই জোট সাবেক সেনা সমর্থিত সরকারের অধীনে এনসিএ চুক্তিতে স্বাক্ষর করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে।