ঢাকা, শনিবার, জানুয়ারী ২০, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

প্রধানমন্ত্রী : আসাদের আত্মত্যাগে স্বাধীনতা আন্দোলন আরো গতিশীল হয় : প্রধানমন্ত্রী * মাইকেল মধুসূদন দত্ত বাংলা সাহিত্যের আকাশে এক উজ্জ্বল নক্ষত্র : প্রধানমন্ত্রী * সাস্থ্যবান প্রজন্ম গড়তে প্রাণিসম্পদ খাতের গুরুত্ব অপরিসীম : শেখ হাসিনা   |   রাষ্ট্রপতি : শহীদ আসাদের সর্বোচ্চ অবদান তরুণ প্রজন্মকে অনুপ্রেরণা যোগাবে : রাষ্ট্রপতি * প্রাণিস্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিতের মাধ্যমে ২০৩০ সালে এসডিজি বাস্তবায়ন সম্ভব হবে : রাষ্ট্রপতি * মধুসূদন দত্ত বহুমাত্রিক প্রতিভার অধিকারী ছিলেন : রাষ্ট্রপতি   |    জাতীয় সংবাদ : শহীদ আসাদ দিবস কাল * বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় ধাপেও পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে : আসাদুজ্জামান খাঁন * এমপিও ভূক্তির জন্য শিক্ষকদের আন্দোলনের প্রয়োজন নেই : আইনমন্ত্রী   |    বিভাগীয় সংবাদ : যশোরের সাগরদাঁড়িতে আগামীকাল শুরু হচ্ছে সপ্তাহব্যাপী মধুমেলা * মাগুরায় ১০ কিলোমিটার মহাসড়কে চার লেনের কাজ এগিয়ে চলছে   |   শিক্ষা : ঢাবি সিনেটে রেজিস্টার্ড গ্র্যাজুয়েট প্রতিনিধি নির্বাচনে ঢাকা কেন্দ্রের ভোট গ্রহণ আগামীকাল   |    জাতীয় সংবাদ : বিশ্ব ইজতেমার ২য় পর্ব শুরু, লাখো মুসুল্লির জুমার নামাজ আদায় * নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে বিএনপি জনপ্রিয়তা যাচাই করতে পারে : হানিফ * তারুণ প্রজন্মকেই আধুনিক সমাজ বিনির্মাণে এগিয়ে আসতে হবে : শিরীন শারমিন * আইভীকে দেখতে হাসপাতালে ওবায়দুল কাদের   |   বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি : ড্রোন প্রযুক্তি ব্যবহারে উড়োজাহাজ তৈরি করেছে গোপালগঞ্জের কিশোর আরমানুল ইসলাম   |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : দ.কোরিয়ায় অগ্রবর্তী বাদকদল পাঠাবে উ.কোরিয়া * আফগানিস্তানে সরকারি বাহিনীর অভিযানে ৮ জঙ্গি নিহত * ইরানের পারমাণু চুক্তির শর্ত কঠিন করাই মার্কিন আইনপ্রণেতাদের লক্ষ্য   |   আবহাওয়া : আবহাওয়া শুষ্ক এবং রাত ও দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে   |   খেলাধুলার সংবাদ : রেকর্ড ব্যবধানে শ্রীলংকাকে হারিয়ে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে বাংলাদেশ *তামিমের ১১, সাকিবের ১০ ও সাব্বিরের ১ হাজার রান *৩শ ম্যাচের মাইলফলক স্পর্শ করলেন মুশফিকুর রহিম   |   

সংসদে সেনানিবাস বিল-২০১৭ উত্থাপন

সংসদ ভবন, ১৪ নভেন্বর, ২০১৭ (বাসস) : বিদ্যমান আইনের সংযোজন-বিয়োজন তথা হালনাগাদ করে আজ সংসদে সেনানিবাস বিল-২০১৭ উত্থাপন করা হয়েছে।
সংসদ কার্যে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক বিলটি উত্থাপন করেন।
বিলে সেনানিবাস প্রতিষ্ঠা, সীমানা নির্ধারণ, এলাকার অন্তর্ভুক্তির ফলাফল, সেনানিবাস বোর্ড তহবিল ব্যবস্থাপনা, হস্তান্তরিত তহবিল ও সম্পত্তির প্রয়োগ, আইনের কার্যকারিতা সীমাবদ্ধতা, অধিদপ্তর প্রতিষ্ঠা, অধিদপ্তরের প্রধান কার্যালয়, মহাপরিচালক ও তার সাময়িক দায়িত্ব, অন্যান্য কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়োগ, অধিদপ্তরের কার্যাবলী, সামরিক ভূমির শ্রেণী, সেনানিবাস বোর্ড এবং নির্বাহী কর্মকর্তা, বোর্ডের আইনগত মর্যাদা, সিটি কর্পোরেশন বা পৌরসভা গণ্য হওয়া, নির্বাহী কর্মকর্তা নিয়োগ ও দায়িত্ব, সেনানিবাসের শ্রেণী বিন্যাস, সেনানিবাস বোর্ড গঠন, বোর্ডের প্রেসিডেন্টের দায়িত্বসহ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে বিধানের প্রস্তাব করা হয়েছে।
বিলে বেসামরিক আবাসিক এলাকা, বাজার সংক্রান্ত কমিটি, প্রশাসনিক প্রতিবেদন, পরিদর্শন, নির্দেশ পালনে বাধ্য করার ক্ষমতা, সিদ্ধান্তের জন্য প্রেরিত বিষয়ে এরিয়া কমান্ডের ক্ষমতা, এ বিষয়ে সরকারের ক্ষমতা, বোর্ড বাতিলকরণ, করারোপ, আদায় ও পৌর দায়িত্বসহ সংশ্লিষ্ট অন্যান্য বিষয়ে সুনির্দিষ্ট বিধানের প্রস্তাব করা হয়েছে।
বিদ্যমান আইনের উল্লেখিত ২৯২টি ধারার মধ্যে অনাবশ্যক ধারা বর্জন ও কিছু নতুন ধারা সংযোজন করে ১৬টি অধ্যায়ে ২১৮টি ধারা উত্থাপিত বিলে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।
বিলে বিদ্যমান কর দাবির নোটিশ ধারা-৯১ (২) এ ফির পরিমাণ ১ টাকার স্থলে ৫শ টাকা করার প্রস্তাব করা হয়েছে।
এছাড়া বিদ্যমান আইনে ৪৩টি বিষয়ে আর্থিক জরিমানার পরিমাণ যুক্তিযুক্তভাবে বৃদ্ধি করার প্রস্তাব করা হয়েছে। যেমন, তথ্য প্রদানের অবহেলা, দায় প্রকাশের বাধ্যবাধকতার ক্ষেত্রে ১শ টাকা জরিমানার স্থলে ২০ হাজার টাকা প্রস্তাব করা হয়েছে। দালান সমাপ্তকরণের ক্ষেত্রে সময়সীমা, জরিমানা ৩ বারের অধিক বর্ধিত হলে ২০ হাজার টাকা এবং ৫ বারের অধিক বর্ধিত করার প্রতি ক্ষেত্রে ৫০ হাজার টাকার জরিমানা করার প্রস্তাব করা হয়েছে।
পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে ৩০ দিনের মধ্যে সংসদে রিপোর্ট দেয়ার জন্য বিলটি প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে প্রেরণ করা হয়েছে।

সম্পর্কিত সংবাদ