ঢাকা, শনিবার, এপ্রিল ২১, ২০১৮

সংবাদ শিরোনাম 

খেলাধুলার সংবাদ : ইংল্যান্ডের নির্বাচক হিসেবে নিয়োগ পেলেন সাবেক ব্যাটসম্যান স্মিথ *ওয়েস্ট ইন্ডিজ, অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে দিবা-রাত্রির টেস্ট খেলবে না ভারত * ওয়েঙ্গারের উত্তরসূরী হিসেবে পাঁচজনকে বিবেচনা করা হচ্ছে   |   আবহাওয়া : দেশের কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলাবৃষ্টি হতে পারে   |    বিভাগীয় সংবাদ : মেহেরপুরের মোমিনুলের আর্সেনিকমুক্ত প্লান্ট আবিস্কার *পিরোজপুর আধুনিক কারাগারের নির্মাণ কাজ এগিয়ে চলছে    |    আন্তর্জাতিক সংবাদ : উ. কোরিয়ার প্রতিশ্রুতিতে সন্তুষ্ট নয় জাপান *সিনেট প্যানেলে প্রত্যাখ্যাত হতে পারেন পম্পেও * অশালীন ভিডিও : সৌদি আরবে বন্ধ করে দেয়া হলো নারী শরীরচর্চা কেন্দ্র *পারমাণবিক অস্ত্র নিরস্ত্রীকরণ প্রশ্নে ইতিবাচক পদক্ষেপ উ.কোরিয়ার   |   

লোকজ সংস্কৃতি বিকাশের মাধ্যমে অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়তে সহায়ক হবে : প্রধানমন্ত্রী

ঢাকা, ১৩ জানুয়ারি, ২০১৮ (বাসস) : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, লোক কারুশিল্প মেলা ও লোকজ উৎসব আবহমান বাংলার লোকজ সংস্কৃতি বিকাশের মাধ্যমে কুসংস্কার ও জঙ্গিবাদমুক্ত অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়তে সহায়ক হবে।
আগামীকাল থেকে শুরু হওয়া লোক কারুশিল্প মেলা ও লোকজ উৎসব উপলক্ষে আজ শনিবার দেয়া এক বাণীতে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।
বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশন ১৪ জানুয়ারি থেকে মাসব্যাপী এই উৎসবের আয়োজন করছে।
শেখ হাসিনা বলেন, দেশীয় সংস্কৃতির লালন ও বিকাশ এবং বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দিতে আওয়ামী লীগ সরকার নিরসলভাবে কাজ করে যাচ্ছে। ১৯৯৬-২০০১ মেয়াদে সরকার গঠন করে ১৯৯৮ সালে বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প আইন প্রণয়ন করা হয়।
তিনি বলেন, ২০০৯ সালে সরকার পরিচালনার দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে বাংলাদেশ লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশনের ব্যাপক উন্নয়ন করা হয়েছে। কোরিয়ার সহযোগিতায় লোক ও কারুশিল্প জাদুঘর ঐতিহাসিক বড় সরদারবাড়ী পুনঃনির্মাণ করা হয়।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, পর্যটকদের সুবিধার জন্য লেকের উপর ব্রিজ, পার্ক ও ৪৮টি কারু বিপণন কেন্দ্র নির্মাণ করা হয়েছে। আমাদের সরকারের উদ্যোগে এ ফাউন্ডেশনের পুষ্প উদ্যানে স্থাপিত জাতির পিতার প্রতিকৃতি ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণে ঘোষিত বাঙালি জাতিসত্তা ও স্বাধীনতার স্মারক হিসেবে চিরদিন অমান হয়ে থাকবে।
শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশের লোকশিল্প, লোকসংস্কৃতি ও লোকশিল্পের ঐতিহ্যকে বিশ্ব দরবারে মর্যাদাসম্পন্ন করার লক্ষ্যে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সার্বিক পৃষ্ঠপোষকতায় এবং শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিনের আন্তরিক প্রচেষ্টায় ১৯৭৫ সালে লোক ও কারুশিল্প ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠিত হয়।
লোক কারুশিল্প মেলা ও লোকজ উৎসবের সার্বিক সাফল্য কামনা করে তিনি বলেন, দেশের ঐতিহ্যবাহী লোক ও কারুশিল্পের গবেষণা, সংগ্রহ, সংরক্ষণ, প্রদর্শন ও পুনরুজ্জীবনে এ ফাউন্ডেশন অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে।